আন্তর্জাতিকবিনোদন
Trending

‘বিক্ষোভ’-এ বিকিনি, পদ্মাপারে ভাইরাল সানি

কালো আঙুরের মাঝে সানি! বাথটব ছাড়িয়ে উষ্ণতা এখন নেটপাড়াতেও

স্বপ্ন সাহার দৌলতে বাংলা সিনেমায় আগেই দেখা গিয়েছিল তাঁকে। এবার তাঁকে দেখা যাবে ওপার বাংলাতেও। শামিম আহমেদ রনির পরিচালনায় ‘বিক্ষোভ’- সিনেমায় দেখা যাবে সানি লিওনিকে।

একটি আইটেম ডান্সে থাকবেন সানি। সঙ্গে থাকবেন অভিনেতা রাহুল দেব। বিষয়টি নিয়ে মুম্বইতে বহুদিন ধরেই রনি মিটিং করেছেন সানির ম্যানেজারের সঙ্গে। দীর্ঘ কথোপকথনের পর রাজি হয়েছেন সানি।

তবে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও শাকিব খানের একটি সিনেমায় আইটেম ডান্সে থাকার কথা ছিল তাঁর। অর্ন্তবর্তী কিছু বিষয়ের জন্য তা আর হয়ে ওঠেনি। এই সিনেমার জন্য সানির আইটেম ডান্সের শ্যুটিং হবে মুম্বইতেই।


বলিউডেও রাগিনী এম এম এস ২, রেইস, হেট স্টোরি ২, এক পহেলি লীলাতে আইটেম ডান্সার হিসেবে দেখা গিয়েছে সানিকে। বাথটবের জলে ভাসছে কালো আঙুর।

আর তাকমধ্যে শুয়ে আছেন অতিপরিচিত এক মোহময়ী। গায়ে একখন্ড সুতোও নেই। এই মহিলা কিন্তু সকলেরই খুব পরিচিত। তিনি সানি লিওনি। উষ্ণতা ছড়ানো সানির অভ্যেস।

কথায় কথায় নিজেকে ভাইরাল করে তুলতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। এবার যখন তিনি প্রথম বাথটবে শুয়ে এই ভিডিয়ো করলেন তখন চমকে গিয়েছিলেন সকলেই।

হেমন্তের শীতল দিনেই বাথটবে শুয়ে উষ্ণতা বাড়ালেন তিনি। শ্যুট হল। আর সেই শ্যুটের এক ঝলক ভিডিয়ো তিনি নিজেই পোস্ট করলেন ইন্সটাগ্রামে।

চোখ কপালে তুলে হাঁ করে সকলেই গিলছেন সেই ভিডিয়ো। আপনিও দেখবেন নাকি! কিছুদিন আগেই শেষ করলেন তাঁর আত্মজীবনীমূলক বায়োপিকের কাজ। স্বামী ড্যানিয়েলের সঙ্গে চুটিয়ে উপভোগ করলেন ইস্টার।


সেই সঙ্গে এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারও দিলেন একটি পত্রিকায়। তিনি সেক্স বম্ব সানি লিওনি। সেই সাক্ষাৎকারেই তিনি জানালেন তাঁর কিউট পাই বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে কাজ করতে চান।

বরুণের মতো এত সুন্দর একজন অভিনেতার সঙ্গে কাজ করতে পারলে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করবেন। একটা সময় তিনি আর বরুণ একই ট্রেনারের কাছে জিম করতেন। তখন থেকেই তাঁদের মধ্যে ভাল সখ্যতা রয়েছে।

এছাড়াও তিনি জানান দীপিকা পাড়ুকোন তাঁর বিশেষ পছন্দের অভিনেত্রী। আর রণবীর সিং সঙ্গে থাকেন বলেই নাকি দীপিকা এত এনার্জেটিক।

কাজে উৎসাহ পান। সেইসঙ্গে ভীরামনদেবী দিয়েই দক্ষিণি দুনিয়ায় প্রবেশ করছেন সানি। এখানে এক রাজকুমারীর চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে। এছাড়াও সানি এখন ব্যস্ত তাঁর পারফিউম ব্র্যান্ড ও কসমেটিকস এর ব্যবসা নিয়ে। আর নিশা, নোয়া ও আশিরকেও আগের তুলনায় অনেক বেশি সময় দিচ্ছেন মা সানি।

আরো পড়ুন :

ফের আগুন জ্বেলে নেট ভাঙলেন দিশা!

দিশা মানেই ইন্টারনেটে সর্বদাই আগুন। ছবি আর ভিডিয়ো নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে তিনি ভক্তদের আনন্দ দিতে ভোলেন না কখনই। এছাড়াও দিশা পাটানি যে ফিটনেস ফ্রিক সেকথা সকলেই জানেন। সম্প্রতি দিশা তাঁর ইন্সটাগ্রামে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন। ভারতে অভিনয়ের সূত্রে তাঁকে বেশ শারীরিক কসরত করতে হয়েছিল।

তখন তিনি প্রতিদিন স্কোয়াট করতেন সুঠাম চেহারার জন্য। সাদা ট্যাঙ্ক টপ আর মেসি হেয়ারের সেই ভিডিয়োই তিনি শেয়ার করেছেন। তার সঙ্গে ক্যাপশনে লেখেন প্রতিদিনই একটা চ্যালেঞ্জ। আর দিশার এই ভিডিয়ো দেখে কিন্তু আপনিও চোখ ফিরিয়ে রাখতে পারবেন না।
আরো পড়ুন :

দিশার সামারস্পেশ্যাল লুকে মজবেন আপনিও

২০১৬ তে এম এস ধোনি দিয়েই বলিউডে এন্ট্রি হয় এই নায়িকার। বিপরীতে ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তারপর তাকে খুব বেশি সিনেমায় দেখা না গেলেও হয়, সেক্সি ছবি শেয়ার করে তিনি ইন্টারনেটে উত্তাপ ছড়াতে ভোলেন না।

তিনি দিশা পাটানি। ইন্সটাগ্রামে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা দেখলে আপনার চোখ কপালে উঠবে। ভক্তদের জন্য প্রতিদিনি কিছু না কিছু ছবি ভিডিয়ো তিনি আপলোড করেন।

আর তা ভাইরাল হতেও বিশেষ সময় লাগে না। সম্প্রতি একটি ছবিতে তাকে দেখা গেলো কালো কেলভিন ক্লেনের অর্ন্তবাসে। সামার স্পেশ্যাল ফটোশ্যুটে এই অর্ন্তবাস পরেছিলেন তিনি। সেই ছবিতে লাইকের সংখ্যা! গুনে শেষ করতে পারবেন না। তবে এই ছবি দেখেই বোঝা গিয়েছে দিশা প্রতিদিন কতটা সময় দেন শরীরচর্চার পেছনে।


কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে সলমানের ভারত। সেখানেও একটি ছোট চরিত্রে দেখা গিয়েছে দিশাকে। তবে সলমনের সঙ্গে স্কিন শেয়ার করতে পেরে খুবই খুশি দিশা।

আরো পড়ুন :

‘স্কুলে পড়ার সময় থেকে আমাকে বলা হত সেক্সি! ‘


ষোড়শী এই কন্যা যখন গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডে পা রাখেন তখন থেকেই শুনে আসছেন তিনি ‘সেক্সি’, তিনি ‘বোল্ড’ এবং সেই সঙ্গে ‘যৌনআবেদনময়ী’। তখন এই কথাগুলো শুনতে ভালো লাগলেও পরবর্তীতে তাই যে ট্যাগলাইন হয়ে যাবে তা বুঝতে পারেননি মুনমুন কন্যা রিয়া সেন।

স্যুইম স্যুট, বিকিনিতে ফটোশ্যুট, সাহসী কন্যে হিসেবেই সকলে দেখে এসেছেন রিয়াকে। ১৯৯৮ তে ফাল্গুণী পাঠকের মিউজিক ভিডিয়ো ‘ইয়াদ পিয়া কি আনে লগি’ দিয়েই যাত্রা শুরু রিয়ার। এর পরের বছরই বড়পর্দায় দেখা যায় তাঁকে। তামিল রোম্যান্টিক ড্রামা ‘তাজ মহল’ ডিয়েই ডেবিউ হয় রিয়ার। পরিচালক ছিলেন ভারতীরাজা।


এরপর বলিউডে বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য কাজ করেন তিনি। সুজয় ঘোষের মিউজিক্যাল ড্রামা ঝঙ্কার বিটস, অজয় দেবগনের কেয়ামৎ বক্স অফিস সাফল্য দিয়েছিল রিয়াকে। কিন্তু সাফল্য আসলেও এই সব ‘বোল্ড’ চরিত্র আর চড়া মেকআপে তিনি ক্লন্ত হয়ে পড়ছিলেন। ভীষণ ভাবে চাইছিলেন এই তকমা থেকে বেরিয়ে আসতে।

এমনকী অল্প বয়সেই যৌন হেনস্থার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে রিয়া বলেন,’সিনেমা শুরু করার কিছুদিন পর আমি বুঝতে পারি যে ধরনের চরিত্র আমায় দেওয়া হচ্ছে তার সঙ্গে আমি খাপ খাওয়াতে পারছি না। কিন্তু প্রযোজক, পরিচালকরা আমাকে ওই রকম মেয়ে হিসেবেই দেখছেন।


যখন আমি এই ধরনের চরিত্রে আর স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করলাম না তখন লোকেরা আমার সঙ্গে কাজ করা কমিয়ে দিল। তারা ভাবতে শুরু করল অভিনেত্রী হিসেবে আমি খারাপ। কিন্তু আমি কোনওদিন তাঁদেরকে দোষারোপ করিনি।

যে জামাকাপড় পরে আমি নিজে স্বস্তি পাই না, যে পোশাকে আমার নিজেকে স্ক্রিনে দেখলে ঘেন্না করে, সেই মেকআপ-পোশাকে কখনও অভিনয় করে যাওয়া সম্ভব নয়’। ৩৯ বছরের অভিনেত্রী আরও বলেন, সেক্সি আর বোল্ড শব্দদুটো শুনলে এরপর আমার ভয় লাগতে শুরু করে।

সেই স্কুলজীবন থেকে শুনে আসছি। রাস্তায় বেরোলেই লোকে অবাক হয়ে দেখত। ভাবত বুঝি বাস্তবে সিনেমা দেখছে। এমনকী এই সেক্সি তকমাও আমার উপর মানসিক প্রভাব ফেলেছে। সবসময় ঠিক পারফেক্ট দেখতে লাগবে এভাবে চলা কি সম্ভব! এই মানসিক চাপ থেকেই আমি কীরকম ভয় পেতে শুরু করলাম। আর আমাকেও স্টিরিওটাইপ হিসেবেই কাস্ট করা হত।

রিয়া সারাদিন ভাবতেন কীভাবে এই দমবন্ধ পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসবেন। এরপরই তিনি বলিউড ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। ততদিনে টলিউডেও বেশ কিছু ভালো ছবিতে কাজ করে ফেলেছেন তিনি। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘নৌকাডুবি’। কিছুদিন আগে এমএক্স প্লেয়ারের ওয়েব সিরিজ ‘পতি, পত্নী ঔর উও’ তে অভিনয় করেন রিয়া।

এমন ওয়েব সিরিজে অভিনয় করতে পেরে খুবই খুশি রিয়া। কাজও করেছেন একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে। হিন্দি ছবির দুনিয়া ওয়েব থেকে অনেকটাই আাদা বলে মনে করেন রিয়া। খুব বোল্ড, জোর করে যৌনউত্তেজনা তৈরি করতে হয় না। বরং যেটুকু আসে তা স্বাভাবিক! রিয়ার কথায়,’দর্শকরাও কাঁহাতক খুল্লামখুল্লা প্রেম আর কতদিন দেখবেন’?

আরো পড়ুন :

স্ট্যালোনের মেয়ের লাস্যে খাবি খাচ্ছে অনেকেই! আপনি?

বাবা হলিউডের জনপ্রিয় নাম সিলভেস্টার স্ট্যালোন। যদিও তিনি অধিক পরিচিত রকি বালোবা নামেই। এবার মঞ্চ দাপাতে নামলেন তাঁর কন্যা সোপিয়া রোস স্ট্যালোন। সোপিয়ার বয়স মাত্র ২৩। আর এই বয়সেই সে মডেল হিসেবে খুবই জনপ্রিয়।

১৯৯৬ সালে ফ্লোরিডাতে তার জন্ম। সম্প্রতি সোফিয়া বিকিনি পরে ফটোশ্যুট করেছে। আর সেই ছবি ইন্সটাগ্রামে শেয়ার হতেই হইহই রব পড়ে গিয়েছে। সোফিয়ার মাও ছিলেন বিখ্যাত মডেল। তার সে নিজেকে তৈরিও করেছে হলিউডের জন্যই। সোফিয়ার শরীরী বিভঙ্গ দেখলে আগুন ঝরবে আপনার মনেও।

Facebook Comments

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button